এবার টিকটক থেকেও মানুষের মৃত্যুর ঘটনা ঘটছে

 

এবার টিকটক থেকেও মানুষের মৃত্যুর ঘটনা ঘটছে
টিক টক সফটওয়্যার সম্পর্কে সকলেই জানেন এবং  টিক টক ওয়েবসাইট সম্পর্কে সকলেই জানেন এটা সাধারণত বিনোদনের জন্য ব্যবহার করা হয় এবং এটি একটি জনপ্রিয় সফটওয়্যার হিসেবে অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহারকারীদের কাছে পরিচিত যদিও টিকটক সম্পর্কে প্রত্যেকটি লোক বর্তমানে জেনে গেছে কিন্তু এর থেকে যে মৃত্যুর ঘটনা ঘটবে এটা কেই বা আশা করবে ।


বন্ধুরা টিকটক আমরা বিনোদনের জন্য অনেকেই ব্যবহার করি আবার অনেকেই ব্যবহার করি না এটা কি অপছন্দ করি কিন্তু এরপরও সোনা যে মৃত্যু পর্যন্ত ঘটতে পারে সে বিষয়ে আসলেই কারো ধারণা ছিল না কিন্তু এটাই ঘটেছে ইতালিতে 10 বছরের এক কিশোরী টিকটকের প্ররোচনায় ব্লেড দিয়ে তার গলা কেটে আত্মহত্যা করেছে ।


তাই ইতালি সরকার ইতিমধ্যে টিকটক অস্থায়ীভাবে বন্ধ করে দিয়েছে তবে এই বন্ধের সময়সীমা হচ্ছে 15 ই ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ।

আসুন জেনে নেই কিভাবে মৃত্যু ঘটনা ঘটলো টিকটক থেকেঃ

টিকটকের কিছু লোক একটি চ্যালেঞ্জ প্রতিযোগিতা করেছিল এবং সে প্রতিযোগিতার নাম ছিল "ব্ল্যাকআউট চ্যালেঞ্জ"

এই প্রতিযোগিতায় অংশ নেয় সেই কিশোরী এবং প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করার আগে এ বিষয় নিয়ে তার পিতামাতার সাথে কথা বলে কিশোরীটি কিন্তু পিতা-মাতা এ সম্পর্কে বেশি কিছু না জেনেই তাকে কিছু বলেনা এবং পরবর্তীতে সে নিজে তার একটি স্মার্ট ফোন হাতে নিয়ে বাথরুমে চলে যায় এবং সেখানে প্রতিযোগিতায় অংশ নেয় এবং ব্লেড দিয়ে তার গলা কেটে আত্মহত্যা করে ।

এবং এই খবর নিয়ে ইতালিতে তোলপাড় হচ্ছে এবং ইতালি সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে 13 বছর বয়স এর কম বয়সী কিশোর এবং কিশোরী তারা টিকটক ব্যবহার করা থেকে নিষিদ্ধ থাকবে এবং পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত তারা টিকটক ব্যবহার করতে পারবে না এবং যদি কেউ টিকটক ব্যবহার করতে চায় সেক্ষেত্রে তার বয়স হতে হবে 14 থেকে তার উপরে ।

এই ঘটনা থেকে আমরা এটা শিক্ষা পাই যে শিশুদের কিশোরদের কিশোরীদের সামান্য কোন কথা অগুরুত্ব দেয়া যাবে না ।

Post a Comment (0)
Previous Post Next Post